জরুরিভিত্তিতে ভ্যাকসিন ক্রয় ও সকল জনশক্তিকে ভ্যাকসিনের আওতায় নিয়া আসা সরকারের প্রধান কাজ – পীর সাহেব চরমোনাই

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, ভ্যাকসিন সংগ্রহ এই মূহুর্তে সরকারের প্রধান কাজ। ভ্যাকসিন ক্রয়ের স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে হবে। কিন্তু যে দামেই ভ্যাকসিন পাওয়া যাক, তাতেই আমাদের ভ্যাকসিন ক্রয় করা উচিত। কেননা লকডাউনের আর্থিক ক্ষতি ভ্যাকসিনের আপাত উচ্চ দামের চেয়ে অনেক বহুগুণ বেশি। তিনি বলেন, অতি দ্রুত সময়ের মধ্যে দেশের সকল জনশক্তিকে ভ্যাকসিনের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। করোনা ভাইরাসের প্রতিরোধক টিকা প্রদানে সরকারের খরচে দুর্নীতি হচ্ছে, অবিলম্বে তা বন্ধ হওয়া প্রয়োজন। তিনি বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী সামগ্রিকভাবে ব্যর্থ হয়েছে। সরকার ক্ষমতায় থাকার নৈতিক অধিকার হারিয়েছে।

আজ এক বিবৃতিতে পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, সরকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ব্যাপারে লাগাতার টালবাহানা করে যাচ্ছে। সরকারের বিবেচনাহীন এই সিদ্ধান্ত কোটি কোটি শিক্ষার্থীর জীবনই কেবল ক্ষতিগ্রস্ত করেনি, গোটা শিক্ষা ব্যবস্থাকেই এখন প্রায় ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে উপনিত। অবিলম্বে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিয়ে শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকারভিত্তিতে ভ্যাকসিন দিতে হবে।

তিনি বলেন, প্রয়োজনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ক্লাসের সময়সীমা এবং কর্মদিন কমিয়ে এনে হলেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে হবে; এর কোনও বিকল্প নেই। শিক্ষার্থীরা ক্রমেই ঝরে যাচ্ছে; যার প্রভাব সমাজে পড়তে শুরু করেছে।

পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, এটা স্পষ্ট যে সরকারের কাজের সমন্বয়হীনতা বিদ্যমান। এ সমন্বয়হীনতা হয়েছে গত বছরের শুরু থেকে। লকডাউন দেওয়া, গার্মেন্টস খোলা, শ্রমিকদের ঢাকা আনা-নেওয়া নিয়ে অন্তত পাঁচবার এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এধরণের কর্মকাণ্ডে সরকারের ব্যর্থতা ক্রমেই ফুটে উঠছে।