তালেবানের ভয়ে তাজিকিস্তানে পালাচ্ছে আফগান সেনারা
 উত্তরাঞ্চলের জেলাগুলো একে একে দখলে নিচ্ছে তালেবান যোদ্ধারা। গতকাল রোববার রাতভর সংঘর্ষে একাধিক জেলা থেকে সরকারি বাহিনীর তিন শতাধিক সেনা প্রতিবেশী তাজিকিস্তানে পালিয়ে যায়।

আল-জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তাজিকিস্তান সীমান্তের বদখশান প্রদেশের দিকে তালেবান যোদ্ধারা অগ্রসর হলে সেনারা পালিয়ে যায়। স্থানীয় সময় রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় এই ঘটনা ঘটে।

তাজিকিস্তানের পক্ষ থেকে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘ভালো প্রতিবেশী এবং মানবিকতার খাতিরে আমরা আফগান সেনাদের প্রবেশের অনুমতি দিয়েছি।’ যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ঘোষণা অনুযায়ী, দেশটি থেকে সরে যাচ্ছে ভিনদেশি সেনারা।

তালেবানের শীর্ষ নেতারা বলেছেন, চুক্তি মোতাবেক আগামী ১১ সেপ্টেম্বরের নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে ওয়াশিংটন আফগানিস্তান থেকে সব সেনা সরিয়ে না নিলে তা হবে চুক্তির ‘সুস্পষ্ট লঙ্ঘন’।

কিন্তু সেনা প্রত্যাহার শুরু হতেই তালেবান যোদ্ধারা অসংখ্য জেলা তারা দখলে নিচ্ছে। আল-জাজিরার তথ্য অনুযায়ী, দেশটির কেন্দ্র এবং ৪২১ টি জেলার মধ্যে প্রায় এক-তৃতীয়াংশ এখন সংগঠনটির দখলে। বদখশান প্রদেশের কাউন্সিল সদস্য মহিব-উল রহমানের অভিযোগ, এই অঞ্চলে কোনো ধরনের লড়াই ছাড়াই তালেবানরা দখল নিচ্ছে। এই ব্যর্থতার পেছনে সেনাদের দুর্বল মনোবলকে দায়ী করেছেন তিনি।

মহিব বলেন, ‘দুর্ভাগ্যজনকভাবে অধিকাংশ জেলা কোনো লড়াই ছাড়াই নিয়ে নিচ্ছে তালেবানরা। দশ দিনে এভাবে দশটি জেলা দখলে নিয়েছে তারা।’ তিনি জানান, কয়েকশ পুলিশ এবং সেনা সদস্য আত্মসমর্পণ করে পালিয়ে গেছে।