হেফাজত-তালেবান নয়, মেননদের মূল এলার্জি ইসলাম নিয়ে: মাওলানা গাজী আতাউর রহমান

হেফাজত-তালেবান নয় রাশেদ খান মেননদের মূল এলার্জি হলো ইসলাম, ইসলামি শিক্ষা ও কওমি মাদ্রাসা নিয়ে, এজন্যই তারা ইসলামের পক্ষের কোনো শক্তি ও কাজকে সহ্য করতে পারেনা মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলনের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান।

এসময় তিনি বলেন, রাশেদ খান মেননরা মূলত কারা, এটা দেশের মানুষ জানে, বুঝে। তাই তাদের বক্তব্য এখন মাঠে মারা পড়ে।

‘দেওবন্দ নয়, হেফাজতে ইসলামের নেতারা সবাই তালেবানের অনুসারী’-  রাশেদ খান মেননের এই বক্তব্যের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় আওয়ার ইসলামকে এসব বলেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, রাশেদ খান মেনন আজ তালেবানের বিরোধিতা করে দেওবন্দের সম্পর্কে  যে বক্তব্য দিয়েছেন এতে বুঝা যায় তিনি দেওবন্দপন্থী, ব্যাপারটা কি আসলেই তাই?

তিনি বলেন, মেনন তার বক্তব্যে বলেছেন, হেফাজত নেতা আল্লামা বাবুনগরী পাকিস্তানে পড়েছেন- এই জ্ঞানপাপীরা বোঝেনা দেওবন্দের অনুসারী শুধু ভারত, বাংলাদেশ নয়, ইউরোপ, আমেরিকা, সাউথ আফ্রিকা, আফগানিস্তান, পাকিস্তানেও আছে।

এমনকি মেনন হেফাজত-তালেবান নেতাদের যেই তালেবানের অনুসারী বলেছে সেই তালেবানের অনেকেও দেওবন্দে পড়েছেন। সে ক্ষেত্রে দেওবন্দ পড়ুয়া তালেবানদের ব্যাপারে মেননের বক্তব্য কি হবে তাহলে- মেননের প্রতি প্রশ্ন তুলেছেন ইসলামী আন্দোলনের এই নেতা।

তিনি মেননকে উদ্দেশ্য করে আরো বলেন, তালেবানদের মধ্যে যারা দেওবন্দের অনুসারী আছে এই তালেবানদেরকে কি তাহলে মেননরা মেনে নেবেন?

হেফাজত বিরোধীতা নয়  মূলত ইসলাম বিদ্বেষ ও তালেবান ভীতি থেকে সংসদে মেনন এই বক্তব্য দিয়েছেন বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বর্তমানে তালেবানের সাথে ইউরোপ, আমেরিকা, চীনসহ বড় বড় শক্তিরা ওঠাবসা করছে ও বিভিন্ন চুক্তিতে আবদ্ধ হতে চাচ্ছে, তাই বর্তমানে মেননদের তালেবান ভীতি আর মার্কেট খাবে না।

তিনি আরো বলেন, তালেবানকে সন্ত্রাসী আখ্যা দেওয়া আমেরিকাযও বর্তমানে সুর পাল্টেছে , তারাই সার্টিফিকেট দিচ্ছে যে তালেবান সন্ত্রাসী নয়।

সংসদে বক্তব্যের মাধ্যমে রাশেদ খান মেনন তালেবান নয় কওমি মাদরাসাকে মাস্টার্সের সমমান দিয়ে প্রধানমন্ত্রী যেই সার্টিফিকেট দিয়েছেন সে বিষয়ে নিজের অন্তরজ্বালা মেটানোর চেষ্টা করেছেন বলে উল্লেখ্য করেন তিনি।  কওমি মাদরাসা ও ইসলামি শিক্ষা নিয়ে মেননরা  বিভিন্ন সময় বিভিন্নভাবে তাদের অন্তর জ্বালায়প্রকাশ করে থাকেন , হেফাজত নিয়ে মেননের সাম্প্রতিক বক্তব্য তারই বহিঃপ্রকাশ বরে মন্তব্য করেন মাওলানা গাজী আতাউর রহমান।

প্রসঙ্গত, আজ সোমবার জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত ২০২১-২০২২ অর্থ বছরের বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন, দেওবন্দ নয়, হেফাজতে ইসলামের নেতারা সবাই তালেবানের অনুসারী।

এসময় মেনন আরো বলেন, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে আমরা হেফাজতের তাণ্ডব দেখেছি। এই তাণ্ডবের সঙ্গে বিএনপি জড়িত ছিল সেটা বিএনপির মহাসচিবের বক্তব্য থেকেই স্পষ্ট। বিএনপির মহাসচিব বলছেন, হেফাজত তাণ্ডব করেনি, সরকার করেছে।

কওমি মাদ্রাসার সনদকে যখন মূলধারা স্বীকৃতি হলো তখন আমি বলেছিলাম আমরা ভুল করলাম কিনা ভেবে দেখা দরকার। তখন বিরোধী দল জাতীয় পার্র্টির একজন সদস্য বলেছিলেন, আমি ‘ধান ভানতে শিবের গীত গেয়েছি’।

প্রধানমন্ত্রীও বলেছিলেন, হেফাজতের নেতারা দেওবন্দের অনুসারী। কিন্তু আসলে হেফাজতের নেতা বাবুনগরী পাকিস্তানের মাদ্রাসায় পড়াশুনা করেছেন। বাস্তবে হেফাজতের সবাই তালেবানের অনুসারী।