শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার দাবিতে জামালপুরে ইসলামী আন্দোলনের মানববন্ধন।

কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যৎ শিক্ষাজীবন রক্ষার্থে অবিলম্বে সবধরণের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে জামালপুরে মানববন্ধন করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার ( ৩ জুন ) বেলা সাড়ে ১০ টায় শহরের দয়াময়ী মোড়ে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন জেলা ইসলামী আন্দোলনের সভাপতি ডাক্তার সৈয়দ ইউনুছ আহাম্মেদ, জয়েন্ট সেক্রেটারী সুলতান মাহমুদ সিরাজী, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা শফিকুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক জামিরুল রহমান, ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক হামিদুর রহমান, প্রচার সম্পাদক হাফেজ রফিকুল ইসলাম, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক, মুফতী রহমতুল্লাহ আল হোসাইনী, মুক্তিযুদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা দেলোয়ার হোসাইন কাসেমী।

ইসলামী আন্দোলন সদর থানা শাখার সভাপতি হাফেজ জাহেদুল ইসলাম, জেলা ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের সভাপতি আশেক মাহমুদ, জেলা ইসলামী যুব আন্দোলনের সভাপতি মুফতি সালেহ আহাম্মেদ, জয়েন্ট সেক্রেটারী হাফেজ এইচএম মাসুম মুসফিক, জেলা ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের সভাপতি লিয়াকত হোসাইন, ইসলামী আন্দোলন বকশীগঞ্জ থানা শাখার সভাপতি মাওলানা আব্দুল মজিদ, ইসলামী আন্দোলন দেওয়ানগঞ্জ থানা শাখার সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোরশেদ, ইসলামী আন্দোলন সরিষাবাড়ি থানা শাখার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আবু বক্কর সিদ্দীক, ইসলামী আন্দোলনের নেতা আলহাজ¦ শামছুল হক, আলহাজ¦ মতিউর রহমান, মোকছেদুর রহমান, সোলায়মান কবির, মাওলানা সাইফুল্লাহ জামালপুরী, কিন্ডার গার্ডেন এসোসিয়েশনের জয়েন্ট সেক্রেটারী রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, জাতিকে মুর্খ বানানোর গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে প্রায় ১৫ মাস যাবৎ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যৎ শিক্ষাজীবন রক্ষার্থে অবিলম্বে সবধরণের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া না হলে ইসলামী আন্দোলনের আমীর পীর সাহেব চরমোনাইয়ের নির্দেশে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।