সরকারের উচিত মানবিক সাহায্য নিয়ে ফিলিস্তিনিদের পাশে দাঁড়ানো: মাওলানা আতাউর রহমান

ফিলিস্তিনে ইসরাইলের সন্ত্রাসী হামলাকে কেন্দ্র করে বিশ্ব রাজনীতিতে নতুন মেরুকরণ শুরু হয়েছে। বাংলাদেশ রাষ্ট্র বরাবরই মজলুম ফিলিস্তিনিদের পক্ষে এবং দখলদার ইসরাইলের বিরুদ্ধে।

সাম্প্রতিক ঘটনাপ্রবাহে বিশ্বপরাশক্তি স্পষ্টতঃ দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছে।

একদিকে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, ফ্রান্স ও তাদের ইউরোপীয় মিত্র। অপরদিকে চীন, রাশিয়া। সঙ্গে আছে তুরস্ক, ইরান,পাকিস্তান।
মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম দেশগুলোর মধ্যে কাতার জোরালোভাবেই ফিলিস্তিনের পক্ষে এবং দখলদার ইসরাইলের বিরুদ্ধে।
নতুন যুদ্ধ পরিস্থিতিতে চাপে আছে সৌদি আরব, মিশর, আরব আমিরাত।
প্রতিবেশি রাষ্ট্র ভারত সন্ত্রাসী রাষ্ট্র ইসরাইলের পক্ষে।

তবে এখনো পর্যন্ত হামাস একাই লড়াই করে যাচ্ছে দানব ইসরাইলের বিরুদ্ধে। একমাত্র কাতার তাদেরকে ৫০ লাখ ডলার সহযোগিতার ঘোষণা দিয়েছে। তা ছাড়া অন্য কোন রাষ্ট্র ফিলিস্তিনকে অর্থনৈতিক বা সামরিক কোন সহযোগিতার ঘোষণা দেয়নি।

ঢাকাস্থ ফিলিস্তিনি দূতাবাস অনলাইনে ফিলিস্তিনি নাগরিকদের জন্য সাহায্যের আবেদন জানিয়েছে।

বাংলাদেশ সরকারের উচিত মানবিক সাহায্য নিয়ে স্বাধীনতাকামী মজলুম ফিলিস্তিনিদের পাশে দাঁড়ানো।

বাংলাদেশের মানবতাবাদী মুসলমানদেরও উচিত ফিলিস্তিনি দূতাবাসের আহবানে সাড়া দিয়ে, মজলুম ফিলিস্তিনি ভাইদের জন্য সহযোগিতার হাত সম্প্রসারিত করা।