আল আকসায় ইসরাইলী হামলার তীব্র নিন্দা জানালেন হেফাজত মহাসচিব

মুসলমানদের প্রথম ক্বিবলা পবিত্র আল আকসা মসজিদে ইহুদিবাদী ইসরাইলের বর্বর হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ-এর মহাসচিব আল্লামা নুরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, অভিশপ্ত ইয়াহুদী জাতির অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলের সন্ত্রাসী সেনারা গত কয়েকদিন যাবত মুসলমানদের প্রথম ক্বিবলা পবিত্র আল আকসা মসজিদ ও ফিলিস্তিনের সাধারণ জনগণের ওপর বর্বরতম হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। এই হামলায় নিষ্পাপ শিশুসহ অসংখ্য ফিলিস্তিনি শহীদ ও আহত হয়েছেন। আমরা ইসরাইলের এহেন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

আজ (১১ মে) এক বিবৃতিতে হেফাজত মহাসচিব আল্লামা নুরুল ইসলাম এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, পবিত্র রমজান মাস চলছে। এই মাসে মুসলিমরা পবিত্র আল আকসায় ইবাদতের জন্য সমবেত হয়। আর এই সময়টাকেই সন্ত্রাসীরা ইয়াহুদীরা হামলার জন্য বেছে নিয়েছে। তারা মসজিদুল আকসায় প্রবেশ করে মুসল্লিদের ওপর গুলি বর্ষণ করেছে। মসজিদের আঙ্গিনায় আগুণ ধরিয়ে দিয়েছে। মানবতার শত্রু ইয়াহুদীদের এহেন কর্মকাণ্ডে পুরো মুসলিম জাতি চরমভাবে ক্ষুব্দ।

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সমালোচনা করে আল্লামা নুরুল ইসলাম বলেন, ইবাদতরত মুসলিমদের ওপর নির্বিচারে হামলা করে মসজিদের আকসাকে অপবিত্র করার পরেও জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো নির্বিকার হয়ে বসে আছে। তারা অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলীর সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডকে নীরবে সমর্থন দিচ্ছে। রাতের অন্ধকারে ঘুমন্ত ফিলিস্তিনি শিশুদের হত্যা করা হলেও বিশ্বের তথাকথিত মানবাধিকার সংস্থাগুলো চুপ রয়েছে। তাদের আচরনে মনে হচ্ছে যেনো মুসলিমদের মানবাধিকার থাকতে নেই!

ওআইসি-সহ বিশ্বের সকল মুসলিম দেশ ও সংস্থাকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানিয়ে হেফাজত মহাসচিব বলেন, যে ওআইসি গঠন হয়েছিলো মসজিদুল আকসাকে রক্ষার জন্য, সে ওআইসির কর্মকাণ্ড এখন প্রশ্নবিদ্ধ! এমন বর্বর হামলার ঘটনার পরেও ওআইসির পক্ষ থেকে আমরা কোনও কার্যকর ভূমিকা দেখতে পাইনি। যা অত্যন্ত লজ্জাজনক। মুসলিম বিশ্বের উচিৎ সন্ত্রাসবাদী অবৈধ ইয়াহুদী রাষ্ট্র ইসরাইলের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রথম ক্বিবলা বাইতুল মোকাদ্দাসকে রক্ষা করা। আল আকসা রক্ষায় মুসলিম বিশ্বের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার কোনও বিকল্প নেই।

বিশেষ করে আরব বিশ্বের অনৈক্যের কারণে অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইল আজ এমন কর্মকাণ্ড করার সাহস পাচ্ছে বলে মন্তব্য করে আল্লামা নুরুল ইসলাম বলেন, আরব বিশ্ব যতদিন ঐক্যবদ্ধ না হবে, ততদিন এই অভিশপ্ত ইহুদিরা আল আকসায় হামলা অব্যাহত রাখতে সক্ষম হবে। তাই অনতিবিলম্বে আরব বিশ্বের উচিৎ ঐক্যবদ্ধ হয়ে ইসরাইলকে মোকাবেলা করা। যেসব আরব রাষ্ট্র ইসরাইলের পক্ষে অবস্থান নিয়েছিলো, তাদের বুঝা উচিৎ চুক্তি বা অন্য কিছুর মাধ্যমে ইসরাইলের সাথে সমঝোতা সম্ভব নয়। কথিত আব্রাহামিয় চুক্তির পরেও যেভাবে ইসরাইল তাদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড অব্যাহত রেখেছে, তাতে এবিষয়টি স্পষ্ট।

আল আকসায় ইসরাইলের সন্ত্রাসী সেনাদের হামলার নিন্দা জানানোয় বাংলাদেশ সরকারসহ তুরস্ক ও পাকিস্তান সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন হেফাজত মহাসচিব আল্লামা নুরুল ইসলাম।