ঈদের আগেই নেতাকর্মীসহ আলেমদের মুক্তি দিন -ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

 

সারাদেশে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন দলের মহাসচিব প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ ও যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান।

আজ রোববার এক বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, গত শুক্রবার বাদ জুমা বি-বাড়ীয় জেলা মহিলা ও পরিবার কল্যাণ সম্পাদক মাওলানা নিয়াজুল করীমকে র‌্যাব তাঁর বাড়ী থেকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়। তার বিরুদ্ধে কোনো মামলা বা ওয়ারেন্ট ছিল না।

বেশ কিছু দিন ধরে পুলিশ সারা দেশেই অভিযান চালিয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর নেতা-কর্মীদের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করছে। সরকার মানুষের বাক স্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছে। সরকার সারাদেশকে এক কারাগারে পরিণত হয়েছে।

পবিত্র রমজান মাসে যখন মানুষের সাথে কোমল আচরণ করার কথা, তখন পুলিশ নিরীহ মানুষকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে জুলুম-নির্যাতন চালাচ্ছে। আমরা এই অন্যায় গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সারাদেশে ইসলামী আন্দোলন, ছাত্র ও যুব আন্দোলনের অন্তত ২৭ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে।

তারা আরো বলেন, ‘রাষ্ট্রের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালনের পরিবর্তে সরকারের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। জুলুম-নিপীড়ন চালিয়ে সরকার বেশি দিন ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারবে না।

জুলুম-নিপীড়নের পরিণতি কখনো শুভ হয় না। গ্রেফতারকৃত মাওলানা নিয়াজুল করীম, সিরাজগঞ্জ জেলা সভাপতি মাওলানা মুহিব্বুল্লাহসহ সারাদেশে গ্রেফতারকৃত সকল নেতাকর্মীকে ঈদের আগেই মুক্তি দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট মহলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।