পবিএ রমজানেও ফিলিস্তিনিদের আল-আকসায় প্রবেশে বাধা ইসরায়েলের

 

পশ্চিম তীরের ফিলিস্তিনিদের পবিত্র আল-আকসা মসজিদে ঢোকার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ইসরায়েলের দখলদার পুলিশ বাহিনী। শুক্রবার রমজানের তৃতীয় জুমায় তাদের প্রবেশে বাধা দেওয়া হয় বলে খবর দিয়েছে তুর্কি বার্তা সংস্থা আনাদুলু।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সম্প্রতি ইসরায়েলের পক্ষ থেকে বলা হয়, যারা আল-আকসা মসজিদে নামাজ আদায় পড়তে যাবেন, তাদের অবশ্যই কোভিড-১৯ এর টিকা নিতে হবে।

তবে ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এমনিতেই পশ্চিম তীরে ভ্যাকসিনের স্বল্পতা রয়েছে। তার ওপর যারা আগে থেকেই হৃদরোগে ভুগছেন এবং বয়স্ক তাদের দেওয়ার মতো ডোজও সীমিত।

পশ্চিম তীর থেকে জেরুজালেমগামী রাস্তায় দখলদার ইসরায়েলি পুলিশের যেসব চেকপোস্ট রয়েছে, সেগুলোতে খুব সকাল থেকেই ফিলিস্তিনিদের ভিড় লক্ষ করা গেছে। অনেকেই দীর্ঘক্ষণ থেকেও আল-আকসায় যাওয়ার অনুমতি পাননি।

একটি সূত্র আনাদুলুকে জানায়, ইসরায়েলের দখলদার কর্তৃপক্ষ সীমিত সংখ্যক ফিলিস্তিনিকে আল-আকসায় জুমার নামাজ পড়তে যাওয়ার অনুমতি দিয়েছে।

নিদা আব্দুল্লাহ নামের এক ফিলিস্তিনি আনাদুলুকে বলেন, তিনি জেরুজালেমে প্রবেশের জন্য প্রাণপণ চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘সেই ভোর বেলা থেকে আমি জেরুজালেমে প্রবেশের চেষ্টা করেছি, প্রত্যেকবার ইসরায়েলি পুলিশ আমাকে বাধা দিয়েছে এবং জেরুজালেমে যাওয়ার অনুমতি দেয়নি।’

উল্লেখ্য, দীর্ঘ বছর থেকে ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ পূর্ব জেরুজালেমের বাসিন্দাদের জন্য আল-আকসা মসজিদে প্রবেশের ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করেছে।

আর পশ্চিম তীরের বাসিন্দাদের ক্ষেত্রে নিতে হয় বিশেষ অনুমতি। অন্যদিকে, গাজা বাসিন্দাদের জন্য কোনো অনুমতিই নেই।