মাওলানা মামুনুল হক কে পরামর্শ দিলেন মাওলানা হাবিবুর রহমান মিসবাহ

মাওলানা হাবিবুর রহমান মিসবার ফেসবুক পেজ থেকে।

যারা মামুন ভাইকে তীর্যক সমালোচনা করছেন, তাদের চুপ থাকা আমলনামার জন্য জরুরি। কারণ হয়ত তিনি তাঁর অন্যায়ের জন্য আল্লাহর কাছে ক্ষমা চেয়ে প্রিয় হয়ে গেছেন বা যাবেন, কিন্তু সমালোচকরা থেকে যাবে অনেক পেছনের সারিতে।

আর তাঁর পাশে যারা আছেন তাদেরও উচিত মামুন ভাইকে আর কোনো ওজাহাত করতে না দেওয়া। স্পর্ষকাতর বিষয়ে চুপ থাকাই ভালো। আমাকে অপবাদ দেওয়ার ক্ষেত্রে আমি সেটাই করেছি। ৫মাস আগে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছি এবং ক’দিন আগে একটি ভিডিও দিয়েছি ব্যস। এতটুকু না হলে অনুরাগীরা বেশি বিভ্রান্তে পড়ে যেতেন৷ বাকি পুরো ৫মাস ধরে অনবরত আমাকে নিয়ে মিথ্যাচার করেছে স্বজাতি একাত্তর— যারা আজ গলা ফাটিয়ে সমালোচনা ও আলেমদের বদনাম করার কুফল বর্ণনা দিচ্ছেন! তবুও চুপ থাকার সুফল পেয়েছি আলহামদুলিল্লাহ। আজ দিবালোকের ন্যায় স্পষ্ট— বিনা প্রমাণে শুধু দুইটা বাচ্চার মা ডাক শুনে আমার ওপর কতটা জুলুম আর মিথ্যাচার করা হযেছিল।

যাহোক, সাতসকালে একজনের ফোন— ভাই মামুন হুজুর যে জানেন না তার বউ কোথায় আছে সেটা লাইভে এসে জাতিকে জানাবার কি খুব দরকার ছিল? তিনি ৯৯৯ অথবা দলীয় লোক মারফত স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতা নিলেই পারতেন। এই মুহূর্তে পাবলিক প্লেসে বউ নিয়ে উত্তেজনা তৈরি করলে তারই সম্মানহানী হবে সেটা তিনি কেন বোঝেন না? ফোনটা একজন গুরুত্বপূর্ণ লোকের ছিল তাই বিষয়টা উল্লেখ করলাম। জানি না এজন্য আবার কোন গালির বন্যা বয়! আমাকে গালির ক্ষেত্রে কিন্তু সমালোচনার কুফলের বযান থাকবে না! আফসোস!!!

আমি মনে করি— মামুন ভাই একদম চুপ হয়ে যান। কিছুদিন ফেসবুক অবজার্ভ করুন। কোনো প্রতিক্রিয়া দেখাবার প্রয়োজন নাই। ভুলত্রুটি মানুষেরই হয়। যে ভুল বুঝে অনুতপ্ত হয় পৃথিবীতে সেই মানুষই আল্লাহর কাছে অধিক প্রিয়…

হাবিবুর রহমান মিছবাহ