ভোর রাতে মামুনুল হকের স্ত্রীর ওপর হামলার অভিযোগ: পুলিশের সহযোগীতায় মুক্ত

গত কয়েকদিন ধরে ব্যাপক আলোচিত-সমালোচিত হেফাজত ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক শুক্রবার (৯ এপ্রিল) ভোর ৩টার দিকে লাইভে অভিযোগ করেছেন, তার স্ত্রীর ওপর ভয়াবহ হামলার ঘটনা ঘটেছে। তিনি লাইভে জানান, তার স্ত্রী কেরাণীগঞ্জের ঘাটারচরে ভয়াবহ হামলার শিকার হয়েছেন। এসময় তিনি পুলিশের কাছে সাহায্য চেয়ে ছিলেন।

শুক্রবার (0৯ এপ্রিল) রাত ৩টায় নিজের ফেসবুক থেকে লাইভে এসে বিতর্কিত ইসলামিক বক্তা মাওলানা মামুনুল হক দাবী করেন, তার স্ত্রী’র ওপর ভয়াবহ অতর্কিত হামলা হয়েছে। কেরানীগঞ্জের ঘাটারচর এলাকার মাদ্রাসার পেছনে হাজী সাহেবের বাসায় তার স্ত্রী অবস্থান করছেন জানিয়ে মামুনুল হক বলেন, আমি আশংকা করছি আমার স্ত্রীকে তুলে নেওয়ার জন্য অথবা কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা করার জন্য সেখানে এ ধরনের অভিযান চালানো হয়েছে।

এসময় লাইভে মামুনুল হক কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশের সহায়তা চাওয়ার পাশাপাশি কেরানীগঞ্জের ঘাটারচর এলাকার সাধারন জনগনকেও সাহায্য করতে এগিয়ে আসতে বলেন।

নিজের ফেসবুক লাইভ থেকে স্ত্রীর উপর হামলার এমন ভয়াবহ অভিযোগ করার কিছুসময় পর সে ভিডিও ফেসবুক থেকে মুছেও দিয়েছেন মামুনুল হক। হামলার অভিযোগ করার ঘন্টাখানেক পর মামুনুল হক তার ফেসবুক থেকে আবারও একটা স্ট্যাটাস লিখেন। এসময় তিনি ফেসবুকে লিখেন ‘আলহামদুলিল্লাহ স্থানীয় পুলিশের সহযোগিতায় পরিস্থিতি স্বাভাবিক ! আমার লাইভ ভিডিওটি যারা শেয়ার /ডাউনলোড করেছেন, রিমুভ করে দেন। ‘

মামুনুল হক এসময় তার লাইভ ভিডিও সবাইকে রিমুভ করার অনুরোধ জানালেও তার স্ত্রীর সর্বশেষ অবস্থান ও হামলার বিষয়ে আর কোন বক্তব্য জানাননি। সর্বশেষ সকাল ৭ টায় মামুনুল হক নিজের ফেসবুক থেকে স্ট্যাটাসটিও মুছে ফেলেন।