মোদিবিরোধী মিছিল সিলেটে পুলিশের লাঠিচার্জ, আটক ৭

 

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশে সফরের প্রতিবাদে বাম গণতান্ত্রিক জোটের সিলেটের কালো পতাকা মিছিল ও সমাবেশ কর্মসূচিতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে পণ্ড করে দিয়েছে।

এসময় বাম নেতাদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ বাধে। মিছিল থেকে দুই নারী নেত্রীসহ সাতজনকে আটক করে পুলিশ।

মোদিবিরোধী মিছিল সিলেটে পুলিশের লাঠিচার্জ, আটক ৭
বুধবার (২৪ মার্চ) বিকেল পৌনে ৫টার দিকে সিলেটের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশে সফরের প্রতিবাদে বিকেলে বাম গণতান্ত্রিক জোটের নেতাকর্মীরা সিলেটে কালো পতাকা মিছিল বের করে।

এসময় পুলিশ মিছিলে বাধা দেয়। বাধা উপেক্ষা করে নেতাকর্মীরা মিছিল করতে চাইলে পুলিশ মিছিলে লাঠিচার্জ করে।মোদিবিরোধী মিছিল সিলেটে পুলিশের লাঠিচার্জ, আটক ৭

এতে উদীচী সিলেটের নেতা সন্দ্বীপন রায়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রফ্রন্টের সভাপতি জুয়েল আহমদ, ছাত্র ইউনিয়ন সিলেট মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক কাউসার আহমদসহ বাম গণতান্ত্রিক জোটের অন্তত ১০ জন নেতাকর্মী আহত হন।

 

পরে দুই নারীনেত্রী ও বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক উজ্জ্বল রায়সহ সাতজনকে আটক করে পুলিশ।

মিছিল থেকে আটকরা হলেন-বাম গণতান্ত্রিক জোটের সিলেটের সমন্বয়ক ও বাসদ (মার্কসবাদী) সিলেট জেলার আহ্বায়ক উজ্জ্বল রায়, ছাত্রফ্রন্টের সিলেট মহানগর আহ্বায়ক সঞ্জয় কান্তি দাস, ছাত্র ইউনিয়ন সিলেট জেলা সংসদের নেতা মনীষা ওয়াহিদ, ছাত্রফ্রন্টের সিলেট জেলার সাধারণ সম্পাদক সাদিয়া জাহান নৌশিন, গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিল সিলেট মহানগরের নেতা ফাহিম চৌধুরী, বাসদ (মার্কসবাদী) সিলেট জেলার রেজাউর রহমান রানা ও ছাত্র ইউনিয়ন নেতা কামরান আহমেদ মিজু।

এ ব্যাপারে বাসদ সিলেট জেলার সমন্বয়ক আবু জাফর বলেন, ‘কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আমরা শান্তিপূর্ণভাবে সমাবেশ করছিলাম।

প্রথমে পুলিশ এসে আমাদের ব্যানার ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। পরে আমরা দ্রুত সমাবেশ শেষ করে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে জিন্দাবাজারের দিকে রওনা হওয়ার প্রাক্কালে বিনা উসকানিতে পুলিশ হামলা চালায়। পুলিশি হামলায় আমাদের ১০ জন নেতাকর্মী আহত হন।’
তিনি বলেন, ‘অবিলম্বে আমাদের নেতাকর্মীদের মুক্তি দেয়া না হলে।

আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) বিকেল ৪টায় নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ কর্মসূচি পালন করা হবে। ওই সমাবেশ থেকে তাদের মুক্তির দাবিতে আরও কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।’

কর্মসূচিতে অংশগ্রহণকারী নেতাকর্মীদের অভিযোগ, শুরুতে পুলিশ শান্তিপূর্ণ সমাবেশে সহযোগিতা করে।

সমাবেশের শেষ দিকে বিনা উসকানিতে নেতাকর্মীদের ওপর বেধড়ক লাঠিচার্জ শুরু করে। এসময় পুলিশ সদস্যরা নারী কর্মীদের ওপর হামলা চালায় বলে অভিযোগ করেন।

আন্দোলনকারীরা। একই সঙ্গে অবিলম্বে আটকদের মুক্তি ও হামলাকারী পুলিশ সদস্যদের শাস্তির দাবি জানান জোটের নেতারা।

সিলেট মহানগর পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ জানান, সিলেটে বামের কর্মসূচিতে অংশগ্রহণকারী নেতাকর্মীদের সুশৃঙ্খলভাবে সমাবেশ সম্পন্ন করতে বলা হয়। তারা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে গেলে পুলিশ শৃঙ্খলা ফেরাতে কয়েকজনকে আটক করে।