নিউজিল্যান্ডের মতো সিঙ্গাপুরের মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনা; আটক খ্রিষ্টান কিশোর

 

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে খ্রিষ্টান সন্ত্রাসী কর্তৃক মুসলিমদের হত্যার ঘটনার মতো এবার সিঙ্গাপুরের একটি মসজিদে হামলার পরিকল্পনা করেছিল ১৬ বছর বয়সী সন্ত্রাসী মনস্ক এক খ্রিষ্টান কিশোর। ক্রাইস্টচার্চ হামলার বর্ষপূতিতে সিঙ্গাপুরের দু’টি মসজিদে হামলা করে মুসলিমদের হত্যার পরিকল্পনা করেছিল সে। তবে এরই মধ্যে তাকে আটক করেছে সিঙ্গাপুর কর্তৃপক্ষ।
আন্তুর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোতে বলা হয়েছে, নিউজিল্যান্ডে ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে হামলাকারী খুনি খ্রিষ্টান সন্ত্রাসী ব্রেন্টন ট্যারেন্ট এই কিশোরের অনুপ্রেরণা। সেও ছুরি নিয়ে আক্রমণের ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরাসরি প্রচারের পরিকল্পনা করেছিল।
সিঙ্গাপুরের ইন্টারনাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট অনুসারে আটক হওয়া সর্বকনিষ্ঠ ব্যক্তি হল এ কিশোর। এ আইনে বিনা বিচারে আটক রাখার অনুমতি আছে।
১৬ বছরের ওই সিঙ্গাপুরী বালকের পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি। তবে জানা গেছে, সে ভারতীয় বংশোদ্ভূত প্রটেস্টান্ট খ্রিষ্টান। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, এ কিশোর প্রচণ্ড ইসলামবিরোধিতা ও সহিংসতার মোহ থেকে আক্রমণের পরিকল্পনা করে।
বাসার কাছে আসইয়াফাহ মসজিদ ও ইউসুফ ইসহাক মসজিদের হামলার উদ্দেশ্য ছিল তার। বাবার ক্রেডিট কার্ড চুরি করে প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম কেনার ইচ্ছা ছিল। তার পরিকল্পনা যে কাজ করবে সে বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী ছিল এই খ্রিষ্টান কিশোর। প্রথমে তার পরিকল্পনা ছিল ট্যারেন্টের মতো রাইফেল ব্যবহারের, পরে ছুরি ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নেয়। কারণ সিঙ্গাপুরের কড়া আইনের কারণে আগ্নেয়াস্ত্র বিক্রি খুব কঠিন।