যুক্তরাষ্ট্রে ভয়াবহ সংঘাতের শঙ্কায় ৫০ অঙ্গরাজ্যে সতর্কতা জারি

ইসলামী জার্নাল : যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে সশস্ত্র হামলার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এছাড়া বিদায়ি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ক্ষমতাচ্যুত করার পদক্ষেপের প্রতিবাদ হিসাবে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সহিংসতা ছড়ানো হতে পারে বলে সতর্ক করেছে গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই। এমন আশঙ্কায় দেশটির রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিসহ ৫০টি অঙ্গরাজ্যে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। সারাদেশ থেকে ন্যাশনাল গার্ডের সদস্যদের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে মোতায়েন করা হচ্ছে। ম্যারিল্যান্ড, মেক্সিকো এবং ইউটা অঙ্গরাজ্যের গভর্নর জরুরি অবস্থা জারি করেছে। বিবিসি, এনডিটিভি
এছাড়া ক্যালিফোর্নিয়া, পেনিসিলভেনিয়া, মিশিগান, ভার্জিনিয়া, ওয়াশিংটন এবং উইসকনসিনে জাতীয় নিরাপত্তা রক্ষী মোতায়েন করছে। এবং টেক্সাস শনিবার থেকে বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠান পর্যন্ত তার রাজধানী বন্ধ রাখছে।
টেক্সাসের জননিরাপত্তা বিভাগের পরিচালক জানিয়েছে, সহিংস উগ্রপন্থীরা অপরাধমূলক সংঘাত চালানোর জন্য পরিকল্পিত বিক্ষোভ অনুপ্রবেশ করতে পারে।
পুলিশ জানিয়েছে, শনিবার ভার্জিনিয়ার এক ব্যক্তিকে দুটি অস্ত্রসহ গ্রেফতার করা হয়েছে। তার কাছ থেকে ৫০৯টি অনিবন্ধিত গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। ক্যাপিটল সংলগ্ন পুলিশ চেকপোস্ট অতিক্রমকালে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
ভার্জিনিয়ার গভর্নর রালফ নরথাম বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ‘মনে খারাপ উদ্দেশ্য নিয়ে আপনি যদি এখানে আসার বা ওয়াশিংটনে যাওয়ার চিন্তা করেন তাহলে এখনই তা বাদ দিয়ে ঘরে ফেরেন। আপনাকে এখানে স্বাগত জানানো হবে না এবং আপনাকে আমাদের দেশের রাজধানীতেও স্বাগত জানানো হবে না। আপনি যদি এখানে চলেই আসেন এবং আপনার কাজ করেন, তাহলে তা মোকাবেলায় ভার্জিনিয়া প্রস্তুত।’
যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে আগামী বুধবার ক্ষমতা গ্রহণ করবেন জো বাইডেন। তবে বাইডেনের টিম করোনার কারণে এদিন দেশবাসীকে রাজধানীতে না আসার আহ্বান জানিয়েছে। ওয়াশিংটন ডিসির মেয়রসহ স্থানীয় কর্মকর্তারা জনগণকে নতুন প্রেসিডেন্টের অভিষেক অনুষ্ঠান দূর থেকে দেখার পরামর্শ দিয়েছেন।
বিশ্লেষকদের মতে, নির্বাচনের সময় যেসব রাজ্যে ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকান শিবিরে বৈরীতা দেখা গেছে সেগুলোতে সহিংসতার ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি। সেগুলোর একটি মিশিগান, এরইমধ্যে কর্তৃপক্ষ রাজ্য ক্যাপিটল ঘিরে ছয় ফুট নিরাপত্তা বেষ্টনী তৈরি করেছে।
এদিকে, বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠানে ক্যাপিটল ঘিরে ২০ হাজার ন্যাশনাল গার্ড মোতায়েন করা হচ্ছে। ২০১৬ সালে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সময় এই সংখ্যা ছিলো মাত্র আট হাজার। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।
অপরদিকে বাইডেনের শপথের দিন সকালেই হোয়াইট হাউস ছাড়বেন বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। হোয়াইট হাউসের এক কর্মকর্তা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ফলে বাইডনের শপথ অনুষ্ঠানে ট্রাম্পের না থাকার বিষয়টি মোটামুটি নিশ্চিত। ওয়াশিংটন ডিসি ছেড়ে ফ্লোরিডা যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন ট্রাম্প। সূত্র: বিবিসি, এনডিটিভি