অসহায় শীতার্ত মানুষের পাশে দাড়ানো মানবিক ও নৈতিক দায়িত্ব: ইসলামী আন্দোলন

ইসলামী জার্নাল: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, অসহায় শীতার্ত মানুষের পাশে দাড়ানো সকলের মানবিক ও নৈতিক দায়িত্ব। সুবিধা বঞ্চিত মানুষ শীতে অনেক কষ্টে দিনাতিপাত করছে। অসহায় শীতার্ত মানুষের সাহায্যে সমাজের বিত্তশালীদের এগিয়ে আসতে হবে। তিনি বলেন, সমাজের সুবিধা বঞ্চিত অসহায় মানুষ এই তীব্র শীতে অনেক কষ্টে জীবন যাপন করে। তাদের প্রতি সহযোগিতার হাত প্রসারিত করা উচিত।
গতকাল সন্ধায় পুরানা পল্টনস্থ ইসলামী আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অন্ধ, প্রতিবন্ধি ও বধিরদের সংস্থা প্রতিবন্ধি উন্নয়ন সংস্থা (ডিডিএস)-এর মহাসচিব মুহা. সোলাইমান কবির-এর হাতে শীতবস্ত্র তুলে দেয়ার প্রাক্কালে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দলের যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ ইমতিয়াজ আলম, সেক্রেটারী মাওলানা এবিএম জাকারিয়া, জয়েন্ট সেক্রেটারী আলহাজ্ব আব্দুল আউয়াল মজুমদার, অধ্যাপক নাছির উদ্দিন খান, ইউনুছ তালুকদার প্রমূখ।
পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, ইসলাম প্রতিষ্ঠিত না থাকায় মানুষের দুঃখ দুর্দশার অন্ত নেই। অসহায় ও বঞ্চিত মানুষ অত্যন্ত মানবেতর জীবন যাপন করছে। চাল ও তেলের সীমাহীন মূল্য বৃদ্ধির কারণে নিম্ন ও কম আয়ের মানুষ অত্যন্ত মানবেতর জীবন যাপন করছে। বাজার নিয়ন্ত্রণে সরকার পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে।
মাওলানা ইমতিয়াজ আলম বলেন, দেশে ইনসাফপূর্ণ সমাজ প্রতিষ্ঠিত না থাকায় মানুষ বহু কষ্টে আছে। তিনি বলেন, শীতার্ত দরিদ্র মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণের প্রধানতম দায়িত্ব হলো সরকারের। দেশের দরিদ্র শীতার্ত মানুষের মধ্যে জরুরিভিত্তিতে শীতবস্ত্র বিতরণ করার জন্য তিনি সরকার, বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা, সংগঠন ও দানশীল বিত্তশালী ব্যক্তিবর্গএবং বিশেষভাবে সংগঠনের নেতা-কর্মী ও শুভাকাঙ্খীদের প্রতি আহ্বান জানান।